রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বিশ্ব মানবাধিকার ভিশন ফেণী জেলা শাখা কমিটির সমন্বয় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতঃ ফেণীর সোনাগাজীতে সড়ক দুর্ঘটনায় এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু সরকারের গ্যাস বিল বাকি ৯ হাজার কোটি টাকার বেশি হোয়াইট হাউস ছাড়লেন ট্রাম্প ঘটনাই ঘটেনি কিন্তু আদালতে মামলা! অতঃপর গ্রেফতারী পরোয়ানা ! ফেণীর ফুলগাজীর মুন্সীরহাটে মহিলা আওয়ামীলীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ফেণীর পরশুরাম পৌরসভার মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী সাজেল চৌধুরী ফেণীর ছাগলনাইয়া প্রধানমন্রী কর্তৃক গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রমের জায়গা নির্ধারণ ফেণীর দাগনভূঞায় পৌর নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে দুইটি ককটেল বিস্ফোরণ  ফেণীর সোনাগাজী পৌরসভায় অনলাইনভুক্ত ভাতা বই বিতরণ

ঘটনাই ঘটেনি কিন্তু আদালতে মামলা! অতঃপর গ্রেফতারী পরোয়ানা !

মনজুর আহমেদ,ফরহাদ। ষ্টাফ রিপোর্টার ফেণী :
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৫২৯ বার পড়া হয়েছে

মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে ফেনীর জজ কোর্টের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি বানোয়াট ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত ১৩ জানুয়ারি আদালত থেকে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির পর মামলার বিষয়টি সর্বত্র জানাজানি হয় এবং মামলার বিবাদী নিজেও প্রথম বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হন। ঘটনার সূত্রে জানা যায়, আপন ভাইবোন কর্তৃক পৈতৃক সম্পত্তি আত্মসাতের ঘটনা ধামাচাপা দিতে গত ০১ডিসেম্বর ২০২০ইং ফেনীর জর্জকোর্টের পরশুরাম আদালতে এই মিথ্যা মামলা সাজিয়ে দায়ের করা হয়। মামলার বাদী হয়েছেন ফাতেমা খাতুন এবং বিবাদী করা হয় ফাতেমা খাতুনের বড় সন্তান কাজী গিয়াস উদ্দিন মোহাম্মদ সবুজকে। বিবাদীকে হয়রানী ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্যেশ্যে বিবাদীর প্রকৃত ঠিকানা ব্যবহার না করে উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে বাদী ভুল ঠিকানা আদালতে উপস্থাপন করেন। বাদীর প্রদত্ত ভুল ঠিকানা আদালতে সমন ফেরতের আয়োজন করে গ্রেফতারী পরোয়ানার পরিস্থিতি তৈরি করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায় পরশুরাম উপজেলার ৪নং বক্সমাহমুদ ইউনিয়নের উত্তর তালবাড়িয়া গ্রামের সিলেটি বাড়ীতে গত ২৮/১১/২০২০ইং শরিবার আনুমানিক দুপুর ২টা হইতে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ঘটনা ঘটে। মামলার বিবরণে ১,৫০,০০০/-টাকার সোনা, ৪০,০০০/- কাপড়, ২০,০০০/- টাকার ক্রোকারিজ সামগ্রী চুরি, ভাংচুরে ১,০০,০০০/- টাকার ক্ষতি সাধন, ৫০,০০০/- টাকার বাঁশ-গাছ কর্তন, মারধরের ও লুট-পাটের কথা উল্লেখ থাকলেও মামলায় কোন প্রত্যক্ষদর্শী বা স্থানীয় লোককে স্বাক্ষী করা হয় নি। ঘটনায় ৮০বছরে বৃদ্ধা মাকে বড় লাঠি দিয়ে মারধরের কথা উল্লেখ থাকলেও মামলায় কোন মেডিক্যাল সর্টিফিকেট দেওয়া হয়নি।  (উল্লেখ্য বাড়ির গেটের ৩ গজ দূরত্বে বক্সমাহমুদ উচ্চবিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষ। করোনাকালীণ স্কুল বন্ধ থাকলেও পরীক্ষার ফরম ফিলাপের জন্য ঐ দিন স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের সমাগম ছিল এবং বাড়ির ২০গজ দূরত্বে পরশুরাম ও ফুলগাজী রুটের সিএনজি স্ট্যান্ড তাই সার্বক্ষনিক ঐ স্থানে লোক সমাগম থাকে) মামলার ৪ জন স্বাক্ষীর সকলেই বাদীর পরিবারের সদস্য। ১ম জন বাদীর ছেলের বউ (যিনি ঘটনা স্থলে থাকেন) বাকী ৩জন বাদীর কন্যা। যাদের ২জনের বাড়ী ৫ ও ৮ কিলোমিটার দূরে আর বাকী ১জন বসবাস করেন ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১৭কিলোমিটার দূরে ফেনী শহরে। এই ঘটনার জন্য ফৌজদারী দ-বিধি ১৪৩/ ৪৪৭/৪৪৮/৩৮০/ ৩৭৯/ ৪২৭/৩২৩/ ৫০৬ (ওও) ধারায় মামলা হয়। মামলায় বাদীর বড় ছেলে ও ২ জন বদলা লেবারসহ মোট ৫জনকে আসামী করা হয়। মামলা নং: পি.সিআর-৮১/২০২০ইং

মামালার নথি থেকে জানা যায়, ৫জনকে আসামী করে মামলা করা হলেও অপরাধের বিষয়ে প্রথমিক সত্যতা না পাওয়ায় বিজ্ঞ আদালত ২ থেকে ৫নং বিবাদীকে অর্থাৎ ৪ জনকে এই মামলা থেকে অব্যাহতি প্রদান করেন। ৮টি ধারায় মামলা করা হলেও আদালত ৪৪৭/৩৮০/৪২৭   ধারায় অপরাধ আমলে নিয়ে ১নং বিবাদী কাজী গিয়াস উদ্দিন মোহাম্মদ সবুজের বিরুদ্ধে আদালত সমন জারি করেন। মামলায় ঘটনার সময়: দুপুর ২টা থেকে ৫টা উল্লেখ করা হলেও ঘটনার বিবরণে সকালের বর্ণনা রয়েছে।

বিবাদী কাজী গিয়াস উদ্দিন মোহাম্মদ সবুজ ভারতীয় উপমহাদেশের বরেণ্য বিপ্লবী ও মাস্টারদা সূর্যসেনের সহযোদ্ধা বিপ্লবী বিনোদবিহারী চৌধুরী’র প্রতিষ্ঠিত সংগঠন “কাউন্সিল অব কনজিউমার রাইটস বাংলাদেশ-সিআরবি’র মহাসচিব। তিনি বিগত ২৯ বছর যাবত মানবাধিকার সংগঠন “সেলফ এইড”-এর প্রধান নির্বাহী হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।তিনি স্ব-পরিবারে চট্টগ্রাম শহরে স্থায়ী ভাবে বসবাস করেন। ৩দশক ধরে মানুষের অধিকার  নিয়ে কাজ করা একজন মানুষের বিরুদ্ধে এমন মিথ্যা মামলা জনমনে ক্ষোভের সঞ্চার করেছে। মামলার বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে মানুষ হতবাক হয়ে যান। কেউ কেউ বিষয়টিকে চরম অবিচার এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন বলেও উল্লেখ করেন। জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে ৫জনের দ্বারা সংগঠিত ভাংচুর, লুটপাট ও মারধরের ঘটনা কি করে একজন ব্যক্তি সম্পাদন করেছেন ?  প্রতিক্রিয়ায় এলকাবাসী বলেন, শুধুমাত্র পৈতৃক সম্পত্তি (বাদী গং বিবাদীর ভাই বোনেরা ৮০ভাগ সম্পদ গোপনে বিক্রি করে দেন )  আত্মসাৎ করার জন্য ভাইবোনদের যোগসাজসে ৮০বছর বয়সী বৃদ্ধ মা’কে দিয়ে ছেলের বিরুদ্ধে এই মিথ্যা মামলাটি করানো হয়। বৃদ্ধ মাকে দেখিয়ে তারা আদালতের অনুকম্পা লাভের হীন যড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন বলে সাধারণ মানুষের ধারণা।

২৮নভেম্বর ২০২০ইং সংগঠিত ঘটনার বিষয়ে স্থানীয় ইউপি মেম্বার জনাব ঈদুল হাসান মজুমদার (রুবেল) এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আমার পার্শ্ববতী বাড়ি, তাই নিশ্চিত করে বলতে পারি এমন ঘটনা এলাকায় ঘটেনি। ঘটনার দিন মামলার বাদী এলাকায় ছিলেন না বলেও তিনি নিশ্চিত করেন এবং বলেন ফেনী শহরে বসে মামলার ঘটনা সৃজন করে বাদী এলাকার বদনাম সৃষ্টি করেছেন। তিনি বলেন প্রশাসন চাইলে মোবাইল ট্র্যাকিং প্রযুক্তির মাধ্যমে বাদী ও স্বাক্ষীদের ঘটনার  দিনের অবস্থান নিশ্চিত করতে পারবে।  স্থানীয় সমাজ কমিটির সদস্য/সর্দার জনাব জসিম উদ্দিন পাটোয়ারী ও জনাব আবুল হাসেম পাটোয়ারী(কালু মিয়া) ঘটনাটি ভিত্তিহীন ও বানোয়াট বলে উল্লেখ করেন। ৩ লক্ষ ৬০হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি সংগঠিত এই ঘটনা সম্পর্কে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও পরশুরাম থানার ওসির সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা এ বিষয়ে অবগত নন বলেও জানান। প্রতিবেশী ও স্থানীয় বাসিন্দা কেউই মামলার উল্লেখিত বিষয় সম্পর্কে কিছুই জানেন না। অথচ এই ভিত্তিহীন ঘটনার প্রতিকারে  আইনজীবী হিসাবে আদালতে পিটিশন উপস্থাপন করেন ফেনী বার কাউন্সিল সদস্য এডভোকেট আবদুল কাইয়ুম । স্থানী মানুষের প্রত্যাশা, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে হয়রানিমূলক এই ভিত্তিহীন মিথ্যা মামলার ন্যায্য বিচার নিশ্চিত হবে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:০২ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ
  • ১৬:৩১ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৩৩ অপরাহ্ণ
  • ১৯:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ৫:২১ পূর্বাহ্ণ
©2020 All rights reserved
Design by: SELF HOST BD
themesba-lates1749691102